• সোমবার, ১৮ অক্টোবর ২০২১, ০২:৪৩ অপরাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ
এড. আমজাদ হোসেন কখনও অর্থবিত্তের জন্য রাজনীতি করেননি-এড.ফরিদুল ইসলাম এড.আমজাদ হোসেনের ২য় মৃত্যুবার্ষিকী সফলের লক্ষ্যে প্রস্তুতি সভা সম্পন্ন পূর্ব বড় ভেওলা মাহমুদিয়া হেফজখানা ও এতিমখানায় সাহায্যের আবেদন চকরিয়ায় দখলবাজরা কেটে নিল সামাজিক বনায়নের শতাধিক গাছ মানবিক সাহায্যের আবেদন জাফর আলম এমপি ও জাহেদুল ইসলাম লিটু কে বিশাল সংবর্ধনা আধুনিক ও বাসযোগ্য চকরিয়া পৌরসভা রূপান্তরে কাজ করবো-মেয়র প্রার্থী এড. ফয়সাল চকরিয়ায় ছাত্রলীগ সভাপতিকে নির্যাতনের প্রতিবাদে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ সমাবেশ চকরিয়া বিএমচর ইউপি কার্যালয়ে হামলা ও ভাংচুর, চেয়ারম্যানসহ আহত ৪ চকরিয়া কোনাখালীতে পৈতৃক ভিটা জবর দখলে নিতে সন্ত্রাসী হামলা

পেকুয়ায় ভাড়াবাসা থেকে ফেরিওয়ার গলিত লাশ উদ্ধার

নাজিম উদ্দিন,পেকুয়া / ১৫৩ সময় দেখুন
আপডেট : রবিবার, ২৩ আগস্ট, ২০২০

কক্সবাজারের পেকুয়ায় হারুনুর রশিদ (২৪)নামের এক ফেরিওয়ালার গলিত মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। রবিবার (২৩আগষ্ট) বিকেল ৩টার দিকে পেকুয়া থানা পুলিশ তার মরদেহ উদ্ধার করে। এর আগে স্থানীয়রা বাসা থেকে দুর্গন্ধ বের হলে পুলিশকে অবগত করে। বাসার ভেতর গলিত মরদেহের খবরে শত শত নারী উৎসুক নারী পুরুষ ভীড় জমায়। হারুনুর রশিদ চাপাই নবাবগঞ্জ জেলার শিবগঞ্জ উপজেলার রাজাকান্তপুর এলাকার মৃত,রাজিবুল ইসলামের ছেলে।

জানা গেছে, হারুনুর রশিদ গত ৭/৮ বছর ধরে পেকুয়ায় ফেরি ব্যবসা করে আসছিল। প্লাস্টিকের মালামাল মাথায় নিয়ে পেকুয়ার গ্রাম গঞ্জে ফেরি করত। সদর ইউপির মিয়াপাড়ার মুহাম্মদ কালুর মালিকানাধীন কালুর বাড়ি সংলগ্ন মগনামা-বানিয়ারছড়া সড়কে লাগোয়া ভাড়া বাসায় একাই থাকতেন হারুন।

দুপুরে বাসা থেকে দুর্গন্ধ বের হলে স্থানীয়রা পুলিশকে খবর দেয়। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, ভিতরে দরজার হুক লাগানো ছিল। বাসা থেকে বিশ্রি দুর্গন্ধ বের হচ্ছে। বাসার ভেতর হারুনের গলিত লাশ দেখতে পাওয়া যায়।

বাড়ির মালিকের ছেলে সাংবাদিক সাইফুল ইসলাম বাবুল জানায়, গত তিন মাস আগে মিয়াপাড়ার আজগরকে দোকান ভাড়া দিই। কিছুদিন আগে নাকি আজগর হারনকে দোকানটি উপ-ভাড়া দিয়েছে। আজগর স্যানিটেশন ব্যবসা করে। দোকান থেকে দুর্গন্ধ বের হলে পুলিশকে খবর দিই। দরজার হুক লাগানো ছিল। ভিতরে ব্যবসায়ীর গলিত লাশ পাওয়া যায়। হারুনুর রশিদের মামাতো ভাই দুলাল জানায়, ৭/৮বছর ধরে হারুন পেকুয়ায় ফেরি ব্যবসা করে আসছে। আমরা ১০/১২জন এখানে একই ব্যবসা করে আসছি।

গত এক সপ্তাহ আগে হারুন বাড়ি থেকে এসেছে। দুইদিন আগেও আমার বাসায় এসেছে। আমরা এক সাথে লুডু খেলেছি। সে সুস্থ ছিল। আমাদের সাথে কারো কোন ধরনের শত্রুতা ছিল না। বাসায় একা থাকত হারুন। আমরা ভিন্ন বাসায় থাকি। কোন এক সময় সে হয়তো মারা গেছে।

পেকুয়া থানার অফিসার ইনচার্জ কামরুল আজম জানায়, খবর পেয়ে পুলিশ পাঠিয়েছি। গলিত মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। ভিতরে দরজার হুক লাগানো ছিল। মনে হয় এটা স্বাভাবিক মৃত্যু। লাশের ধরন দেখে মনে হচ্ছে ২দিন আগে মারা গেছে। লাশের স্বজনদের খবর পাঠিয়েছি। সেখানকার থানায় ম্যাসেজ দিয়েছি। তারা আসুক এর পর করনীয় কি দেখা যাবে।জানা গেছে,হারুনুর রশিদ রাজিবুল ইসলাম ও শাহমন আক্তার দম্পতির এক মাত্র সন্তান।

হারুনুর রশিদ জন্মের আগে বাবা রাজিবুল ইসলাম মারা যান। মাতা শাহমন আক্তার একমাত্র সন্তান হারুনকে আগলে ধরে আর সংসার পাতেন নি।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category