• বৃহস্পতিবার, ২১ অক্টোবর ২০২১, ০৯:০০ পূর্বাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ
এড. আমজাদ হোসেন কখনও অর্থবিত্তের জন্য রাজনীতি করেননি-এড.ফরিদুল ইসলাম এড.আমজাদ হোসেনের ২য় মৃত্যুবার্ষিকী সফলের লক্ষ্যে প্রস্তুতি সভা সম্পন্ন পূর্ব বড় ভেওলা মাহমুদিয়া হেফজখানা ও এতিমখানায় সাহায্যের আবেদন চকরিয়ায় দখলবাজরা কেটে নিল সামাজিক বনায়নের শতাধিক গাছ মানবিক সাহায্যের আবেদন জাফর আলম এমপি ও জাহেদুল ইসলাম লিটু কে বিশাল সংবর্ধনা আধুনিক ও বাসযোগ্য চকরিয়া পৌরসভা রূপান্তরে কাজ করবো-মেয়র প্রার্থী এড. ফয়সাল চকরিয়ায় ছাত্রলীগ সভাপতিকে নির্যাতনের প্রতিবাদে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ সমাবেশ চকরিয়া বিএমচর ইউপি কার্যালয়ে হামলা ও ভাংচুর, চেয়ারম্যানসহ আহত ৪ চকরিয়া কোনাখালীতে পৈতৃক ভিটা জবর দখলে নিতে সন্ত্রাসী হামলা

কক্সবাজারের শীর্ষ সাত পুলিশ কর্মকর্তাকে একযোগে বদলি

কক্সবাজার জেলা প্রতিনিধি / ১০৯ সময় দেখুন
আপডেট : মঙ্গলবার, ২২ সেপ্টেম্বর, ২০২০

কক্সবাজারের পুলিশ সুপার এবিএম মাসুদ হোসেনের পর এবার জেলার সাতজন শীর্ষ পুলিশ কর্মকর্তাকে বদলি করা হয়েছে।

সোমবার (২১ সেপ্টেম্বর) আইজিপি ড. বেনজীর আহমেদ স্বাক্ষরিত প্রজ্ঞাপনে তাদের বদলি করা হয়েছে।

কক্সবাজারের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোহাম্মদ ইকবাল হোসাইনকে ডিএমপির অতিরিক্ত উপপুলিশ কমিশনার, সদর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. আদিবুল ইসলামকে মুন্সীগঞ্জের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার, কক্সবাজার সদরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. রেজওয়ান আহমেদকে গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশ-জিএমপির অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার, মহেশখালী সার্কেলের সহকারী পুলিশ সুপার রতন কুমার দাশগুপ্তকে চট্টগ্রাম নবম এপিবিএনের সহকারী পুলিশ সুপার, ট্রাফিক পুলিশের সহকারী পুলিশ সুপার বাবুল চন্দ্র বণিককে চট্টগ্রাম আরআরএফের সহকারী পুলিশ সুপার, চকরিয়া সার্কেলের সহকারী পুলিশ সুপার কাজি মো. মতিউল ইসলামকে নোয়াখালীর সহকারী পুলিশ সুপার, ডিএসবির সহকারী পুলিশ সুপার মো. শহিদুল ইসলামকে চট্টগ্রাম মেট্টোপলিটন পুলিশ (সিএমপি) এর সহকারী পুলিশ কমিশনার হিসেবে বদলি করা হয়েছে।

এর আগে গত ১৬ সেপ্টেম্বর কক্সবাজারের পুলিশ সুপার (এসপি) এবিএম মাসুদ হোসেনকে বদলি করে রাজশাহীর পুলিশ সুপার করা হয়। আর ঝিনাইদহের এসপি মো. হাসানুজ্জামানকে কক্সবাজার জেলা পুলিশের দায়িত্ব দেয়া হয়।

গত ৩১ জুলাই টেকনাফের মেরিন ড্রাইভে সেনাবাহিনীর অবসরপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মেজর সিনহা মোহাম্মদ রাশেদ পুলিশের গুলিতে নিহতের ঘটনায় সমালোচিত হন পুলিশ সুপার। মেজর সিনহা নিহতের পর এসপির সঙ্গে জেলা পুলিশের একাধিক কর্মকর্তার কথোপকথন ফাঁস হয়। যা গণমাধ্যমে ফলাও করে প্রকাশিত হয়। গত ১০ সেপ্টেম্বর নিহত সিনহার বোন এসপি মাসুদকে আসামি করতে আদালতে একটি আবেদন করেন। তবে আদালত সেই আবেদন খারিজ করে দেয়।

সিনহা হত্যায় টেকনাফের বরখাস্তকৃত ওসি প্রদীপ কুমার দাশসহ পুলিশের সাত সদস্য কারাগারে রয়েছেন। দেশ-বিদেশে আলোড়ন সৃষ্টি করা এই ঘটনায় জেলা পুলিশের ভাবমূর্তি অনেকাংশে ক্ষুণ্ন হয়।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category