• সোমবার, ১৮ অক্টোবর ২০২১, ০১:৫৭ অপরাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ
এড. আমজাদ হোসেন কখনও অর্থবিত্তের জন্য রাজনীতি করেননি-এড.ফরিদুল ইসলাম এড.আমজাদ হোসেনের ২য় মৃত্যুবার্ষিকী সফলের লক্ষ্যে প্রস্তুতি সভা সম্পন্ন পূর্ব বড় ভেওলা মাহমুদিয়া হেফজখানা ও এতিমখানায় সাহায্যের আবেদন চকরিয়ায় দখলবাজরা কেটে নিল সামাজিক বনায়নের শতাধিক গাছ মানবিক সাহায্যের আবেদন জাফর আলম এমপি ও জাহেদুল ইসলাম লিটু কে বিশাল সংবর্ধনা আধুনিক ও বাসযোগ্য চকরিয়া পৌরসভা রূপান্তরে কাজ করবো-মেয়র প্রার্থী এড. ফয়সাল চকরিয়ায় ছাত্রলীগ সভাপতিকে নির্যাতনের প্রতিবাদে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ সমাবেশ চকরিয়া বিএমচর ইউপি কার্যালয়ে হামলা ও ভাংচুর, চেয়ারম্যানসহ আহত ৪ চকরিয়া কোনাখালীতে পৈতৃক ভিটা জবর দখলে নিতে সন্ত্রাসী হামলা

নাগর নদীতে নৌ চলাচল বন্ধ সিংড়ায় নদীতে কচুরিপানার স্তুপ, সরাতে ব্যস্ত ৫০ জন শ্রমিক

রাজু আহমেদ, সিংড়া / ১৪৬ সময় দেখুন
আপডেট : মঙ্গলবার, ২২ সেপ্টেম্বর, ২০২০

নাগর নদের পানি প্রবাহের প্রায় দুই কিলোমিটার পথে কচুরী পানার স্তুপ ভয়াবহ জলাবদ্ধতার সৃষ্টি করেছিলো নাটোরের সিংড়া উপজেলার তাজপুর ইউনিয়ন পরিষদ ভবন সংলগ্ন ব্রীজে। এতে পাশ্ববর্তী তাজপুরসহ ১২টি গ্রামের কৃষকদের দুই হাজার একর জমির রোপা ধান ছিলো হুমকির মুখে। এছাড়া ৩০ ফুট গভীর নদের পানি প্রবাহ বাধাগ্রস্থ হওয়ায় তাজপুর ব্রীজও ছিলো ঝুঁকির মধ্যে। স্তুপের কারনে কচুরিপানার উপর দিয়ে মানুষ চলাচল কিংবা দৌড়াতে পারছে এমন স্তুপ জমা হয়েছে।

তিনদিন থেকে স্তুপ সরানোর কারনে পানি প্রবাহ স্থিতিশীল রয়েছে। তবে নৌ চলাচল বন্ধ রয়েছে। সার্বিকভাবে বিষয়টি দেখভাল করছেন আওয়ামীলীগ নেতা আব্দুল জব্বার, তাঁরই নিজস্ব অর্থায়নে কচুরিপানা সরানোর কাজ চলমান রয়েছে। পপুরোপুরি স্তুপ সরাতে এখনো ১০ দিন লাগতে পারে বলে ধারনা করা হচ্ছে।

তাজপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মিনহাজ উদ্দিন সরদার, ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি আব্দুল জব্বার সহ স্থানীয় এলাকাবাসী বিষয়টি মুঠোফোনে জানায় স্থানীয় সংসদ সদস্য ও আইসিটি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলককে। বিষয়টি জানতে পেরে তৎক্ষণাত নাটোরের জেলা প্রশাসক, সিংড়া উপজেলা নিবার্হী কর্মকর্তা, উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তাকে অবহিত করে ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও স্থানীয় ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দকে কচুরিপানা অপসারণের জন্য নির্দেশনা দেন প্রতিমন্ত্রী। সেই নির্দেশনা মেনে ভুক্তভোগী কৃষকদের নিয়ে কচুরিপানা অপসারণের কাজ শুরু হয়েছে।

স্থানীয় হাফিজুর রহমান, নাজমুল হাসান, রহিদুল ইসলামসহ আরও কয়েকজন কৃষক জানান, নদীর পানি বাধাগ্রস্থ হয়ে প্রতিদিন মাঠে যে ভাবে পানি বাড়ছে তাতে দ্রুত ব্যবস্থা না নিলে মাঠের ফসলের পাশা পাশি এই এলাকার বাড়ি ঘরও পানিতে তলিয়ে যাবে। প্রতিমন্ত্রী জানার পর আওয়ামী লীগ নেতারা আমাদের সাথে নিয়ে কচুরিপানা অপসারণের কাজ শুরু করেছে।

তাজপুর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সহ-সভপতি আব্দুল জোব্বার বলেন, নাগর নদীর প্রায় ২০ থেকে ২৫ ফুট নদীর গভীর পানি প্রবাহ বাধাগ্রস্থ হয়ে গেছে এই কচুরী পানা আটকে থাকায়। কচুরী পানার স্তুপ এতো শক্ত যে এর উপর দিয়ে মানুষ হাটা চলা করতে পারছে। আমরা প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলকের নির্দেশে কচুরী পানা সরানোর উদ্যোগ নিয়েছি। প্রতিদিন ৫০ জন শ্রমিক কাজ করছে। পানি প্রবাহ বন্ধ ছিলো। তা চলমান করা হয়েছে।

এদিকে কৃষকদের স্বার্থে কচুরিপানা অপসারণে অংশ নেয়া দলীয় নেতাকর্মীদের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছেন প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক। অতীতে যে কোন দুর্যোগে চলনবিলবাসীর পাশে আওয়ামী লীগ কর্মীরা ছিলো জানিয়ে তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন আগামীতেও কৃষি ও কৃষকের স্বার্থে কাজ করবে আওয়ামী লীগ।

 


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category