• বৃহস্পতিবার, ২১ অক্টোবর ২০২১, ০৭:৪৫ পূর্বাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ
এড. আমজাদ হোসেন কখনও অর্থবিত্তের জন্য রাজনীতি করেননি-এড.ফরিদুল ইসলাম এড.আমজাদ হোসেনের ২য় মৃত্যুবার্ষিকী সফলের লক্ষ্যে প্রস্তুতি সভা সম্পন্ন পূর্ব বড় ভেওলা মাহমুদিয়া হেফজখানা ও এতিমখানায় সাহায্যের আবেদন চকরিয়ায় দখলবাজরা কেটে নিল সামাজিক বনায়নের শতাধিক গাছ মানবিক সাহায্যের আবেদন জাফর আলম এমপি ও জাহেদুল ইসলাম লিটু কে বিশাল সংবর্ধনা আধুনিক ও বাসযোগ্য চকরিয়া পৌরসভা রূপান্তরে কাজ করবো-মেয়র প্রার্থী এড. ফয়সাল চকরিয়ায় ছাত্রলীগ সভাপতিকে নির্যাতনের প্রতিবাদে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ সমাবেশ চকরিয়া বিএমচর ইউপি কার্যালয়ে হামলা ও ভাংচুর, চেয়ারম্যানসহ আহত ৪ চকরিয়া কোনাখালীতে পৈতৃক ভিটা জবর দখলে নিতে সন্ত্রাসী হামলা

চকরিয়া পৌরসভার উন্নয়ন কাজে সংযুক্ত হলো কোটি টাকার স্কেভেটর

এ কে এম ইকবাল ফারুক,চকরিয়া / ৯৫ সময় দেখুন
আপডেট : শনিবার, ৩ অক্টোবর, ২০২০

কক্সবাজারের চকরিয়া পৌরসভার উন্নয়ন কাজে যুক্ত হয়েছে কোটি টাকা দামের স্কেভেটর। পৌরসভার উন্নয়ন প্রকল্প কাজের টেকসই উন্নয়ন নিশ্চিত করণে পৌর মেয়র আলমগীর চৌধুরীর বিশেষ তদবিরে বিশ্বব্যাংকের সহযোগি প্রতিষ্ঠান এমজিএসপি প্রকল্প থেকে এ আধুনিকমানের সরঞ্জামের ব্যবস্থা করা হয়।

জানা গেছে, উপজেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ম সম্পাদক আলমগীর চৌধুরী ২০১৬ সালে চকরিয়া পৌরসভার মেয়র নির্বাচিত হবার পর থেকে তার নিরলস প্রচেষ্ঠায় চকরিয়া পৌরসভার ৯টি ওয়ার্ড এবং পৌরশহরের অলি-গলিতে উন্নয়নের ছোঁয়া লেগেছে। তারই ধারাবাহিকতায় পৌরসভার সকল ওয়ার্ডে আরসিসি সড়ক, কার্পেটিং, আরসিসি ড্রেন, কালভার্ট, ক্রেস ড্রেন, লাইটিং ও সামাজিক ভারসাম্য রক্ষার জন্য বিভিন্ন প্রজাতির বৃক্ষ রোপন করা হয়েছে। চলতি ২০২০-২১ অর্থবছরে চলমান রয়েছে প্রায় ৯০ কোটি টাকার উন্নয়ন প্রকল্পের কাজ। এসব উন্নয়ন কাজের টেকসই উন্নয়ন নিশ্চিত করণে পৌর সভায় যুক্ত করা হচ্ছে কোটি টাকা দামের সরঞ্জাম।

এছাড়া পৌর এলাকার হাট-বাজারের কর, দোকান ভাড়া, গবাদি পশুর হাট ইজারা, অফিস আদালতের পৌরকর, পাবলিক হোল্ডিং কর দিয়ে পরিচালিত হয়ে আসছে চকরিয়া পৌরসভার কার্যক্রম। পাশাপাশি স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ের অধীনে উন্নয়ন সংস্থার সার্বিক সহযোগিতায় মেগাউন্নয়ন প্রকল্পের কার্যক্রমও এগিয়ে চলছে। যে কারণে পৌরশহরের চিত্র দিনদিন বদলে যাচ্ছে। এশিয়া উন্নয়ন ব্যাংক (এডিবির) অর্থায়নে পৌর শহরে ছোট বড় অসংখ্য প্রকল্পের কাজ চলমান থাকায় চকরিয়া পৌরবাসী খুবই খুশি। এছাড়াও পৌরসভার নিজস্ব আয় থেকে এবং ব্যক্তিগত তহবিল থেকে পৌর এলাকায় হতদরিদ্র লোকদের শীতবস্ত্র, সেলাই মেশিন, গরিব ও মেধাবী শিক্ষার্থীদের শিক্ষা উপকরণ ও আর্থিক অনুদান প্রদান করে যাচ্ছেন পৌর মেয়র আলমগীর চৌধুরী।

চকরিয়া পৌরসভার মেয়র আলমগীর চৌধুরী বলেন, একর পর এক উন্নয়নের ছোঁয়ায় বদলে যাচ্ছে চকরিয়া পৌরশহরের চিত্র। তারই ধারাবাহিকতায় বদলে যাচ্ছে পৌরবাসীর জীবনমানও। এমজিএসপি প্রকল্প থেকে ড্রেনের ময়লা আবর্জনা পরিস্কারসহ বিভিন্ন উন্নয়ন কাজ করার জন্য এবার নতুন ভাবে যুক্ত করা হয়েছে কোটি টাকা মূল্যের একটি স্কেভেটর।

মেয়র আলমগীর চৌধুরী আরো বলেন, পৌর শহরের সড়ক উন্নয়নের অবশিষ্ট কাজসমুহ আগামি জানুয়ারি মাসের মধ্যে শেষ করা হবে। এসব সড়ক নির্মান কাজ শেষ হলে আমি মনে করি পৌরবাসীর প্রত্যাশা অনেকাংশে পূরণ হবে। সড়ক নির্মান কাজ ছাড়াও পানির সমস্যা সমাধান এবং রাতে সড়কবাতি দিয়ে পৌর শহরের অলিগলিতে আলোর ব্যবস্থা করা হয়েছে। পৌর শহরের পানি নিষ্কাশনের জন্য পর্যাপ্ত ড্রেন নির্মান কাজ চলমান রয়েছে।

পৌর মেয়র বলেন, চকরিয়া পৌর এলাকায় শিশুদের বিনোদনের জন্য কোনো পার্ক নেই। তাই অত্যাধুনিক একটি শিশুপার্ক করার চিন্তা ভাবনা চলছে। এছাড়া পৌরসভাকে মাদকমুক্ত করার লক্ষ্যে বিভিন্ন কর্মসূচি হাতে নেওয়া হয়েছে। পৌর মেয়র অভিযোগ করেন, পৌরসভা প্রতিষ্ঠার পর থেকে যদি পৌরবাসীর ট্যাক্সের টাকার সঠিক ব্যবহার করা হতো, তাহলে পৌরসভার উন্নয়নের চিত্র আরো অনেক আগে বদলে যেত। ফলে নাগরিক সেবা পেতে এতদিন পৌরবাসিকে অপেক্ষা করতে হতো না। কথার ফুলঝুরি নয় দৃশ্যমান উন্নয়ন উপহার দিয়েই পৌরবাসির পাশে থাকতে চান বলে জানান মেয়র আলমগীর চৌধূরী। ####

 


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category