• সোমবার, ১৮ অক্টোবর ২০২১, ০২:২৫ অপরাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ
এড. আমজাদ হোসেন কখনও অর্থবিত্তের জন্য রাজনীতি করেননি-এড.ফরিদুল ইসলাম এড.আমজাদ হোসেনের ২য় মৃত্যুবার্ষিকী সফলের লক্ষ্যে প্রস্তুতি সভা সম্পন্ন পূর্ব বড় ভেওলা মাহমুদিয়া হেফজখানা ও এতিমখানায় সাহায্যের আবেদন চকরিয়ায় দখলবাজরা কেটে নিল সামাজিক বনায়নের শতাধিক গাছ মানবিক সাহায্যের আবেদন জাফর আলম এমপি ও জাহেদুল ইসলাম লিটু কে বিশাল সংবর্ধনা আধুনিক ও বাসযোগ্য চকরিয়া পৌরসভা রূপান্তরে কাজ করবো-মেয়র প্রার্থী এড. ফয়সাল চকরিয়ায় ছাত্রলীগ সভাপতিকে নির্যাতনের প্রতিবাদে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ সমাবেশ চকরিয়া বিএমচর ইউপি কার্যালয়ে হামলা ও ভাংচুর, চেয়ারম্যানসহ আহত ৪ চকরিয়া কোনাখালীতে পৈতৃক ভিটা জবর দখলে নিতে সন্ত্রাসী হামলা

কোনাখালীর সর্বস্তরের জনতার নয়নের মনি মোক্তার আহমদ

মনসুর মহসিন / ২১৩ সময় দেখুন
আপডেট : সোমবার, ১ ফেব্রুয়ারী, ২০২১

বার্তা সম্পাদক বিবিসি একাত্তর 

 

কোনাখালী ইউনিয়নের সর্বস্তরের জনতার নয়নের মনি, টানা ৪ বারের বৃহত্তর ভেওলা মানিক চর ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক সফল মেম্বার, জননেতা মোক্তার আহমদ।
তিনি আগামী ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে কোনাখালী ইউনিয়ন থেকে চেয়ারম্যান পদে দলীয় মনোনয়ন পেতে নিজের জীবন বৃত্তান্ত তুলে ধরেছেন।

নিম্নে তা হুবহু তুলে ধরা হয়েছে-

“নামঃ মোক্তার আহমদ
পিতা : মৃত আব্দুল জলিল
মাতা : মৃত মেররজা খাতুন
গ্রাম : গ্রাম কোনাখালী, নতুন ঘোনা পাড়া, ০২নং ওয়ার্ড ,
ডাকঃ ডেমুশিয়া-৪৭৪০, ইউনিয়ন: কোনাখালী ,
উপজেলা : চকরিয়া,জেলা: কক্সবাজার।
জন্ম তারিখ : ০৭ নভেম্বর, ১৯৫৩ ইংরেজী
জাতীয় পরিচয় পত্র নং : ৪৬২৮০৭৮৫৫৪,
ভোটার নং : ২২০২৯৫০৭৬৩৮৪
ধর্ম : ইসলাম
নাগরিকত্ব: বাংলাদেশী,
মোবাইল নং : ০১৮১৮-১২৯০৯৯

রাজনৈতিক পরিচিতি
বর্তমান পদবীঃ সদস্য, কক্সবাজার জেলা কৃষকলীগ ।
১। ১৯৯৩ সালে চকরিয়া উপজেলা আওয়ামীলীগের কাউন্সিলর নির্বাচিত হই ।
২। ১৯৯৪ সাল হইতে ২০০৩ সাল পর্যন্ত জনাব মাষ্টার নুরুল আলম সভাপতি ও আমার ছোট ভাই জনাব জাফর আলম ছিদ্দিকী অবিভক্ত ভেওলা মানিকচর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক থাকা কালীন উক্ত কমিটির কৃষিবিষয়ক সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব পালন করি।
৩। বিগত ১৯৯৫ সাল হইতে ২০০২ সাল পর্যন্ত অবিভক্ত ভেওলা মানিকচর ইউনিয়ন কৃষকলীগের সভাপতি ছিলাম।
৪। ১৯৯৬ সালে চকরিয়া উপজেলা আওয়ামীলীগের কাউন্সিলর নির্বাচিত হই ।
৫। ২০০৩ সালে কোনাখালী ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক ছিলাম ।
৬। ২০০৩ সালে বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ কোনাখালী ইউনিয়ন শাখার আহবায়ক কমিটিতে ০৩নং সদস্য ছিলাম।
৭। আমি ২০০৩ সালে উপদেষ্টা কমিটির সহ-সভাপতি ছিলাম এবং চকরিয়া উপজেলা সম্মেলনে কাউন্সিলর হই।
৮। ২০০৩ সালে কোনাখালী ইউনিয়নের ০২নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি নির্বাচিত হয়ে দায়িত্ব পালন করি।
৯। ২৫-০৫-২০০৩ ইংরেজী তারিখে কোনাখালী ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সম্মেলনে নির্বাচনে আমার ছোট ভাই জাফর আলম ছিদ্দিকী বিপুল ভোটে সভাপতি নির্বাচিত হয়। উক্ত কমিটিতে আমি ০৩নং সদস্য হিসেবে দায়িত্ব পালন করি। সে বর্তমানে মাতামুহুরী সাংগঠনিক উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন।
১০। ২০০৫ সালে চকরিয়া উপজেলা কৃষকলীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি নির্বাচিত হয়ে দায়িত্ব পালন করি ।
১২। আমি বর্তমানে সন্ত্রাস-নাশকতা ও জঙ্গীবাদ প্রতিরোধ কমিটির কোনাখালী ইউনিয়ন শাখার সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব পালন করছি।
১৩। আমার অপর ছোট ভাই জনাব মোস্তাক আহমদ কোনাখালী ০২নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সভাপতি হিসেবে বর্তমানেদায়িত্বরত আছেন।
১৪। আমার ভাতিজা মোঃ মুস্তাফিজুর রহমান বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ কোনাখালী ইউনিয়ন শাখারসাধারণ সম্পাদক হিসেবে বর্তমানে দায়িত্বরত আছে।
১৬। আমি গত ৩১জানুয়ারী’১৬ ইং তারিখে জেলা আওয়ামীলীগের সম্মেলনে কাউন্সিলর ছিলাম।
১৭। আমি মাতামুহুরী সাংগঠনিক উপজেলা আওয়ামীলীগের সদস্য হিসেবে দায়িত্ব পালন করছি ।
১৮। আমি কক্সবাজার জেলা আওয়ামীলীগের গত ৩১ জানুয়ারী’২০ ইং তারিখে কাউন্সিলর হিসাবেও নির্বাচিত হইয়াছিলাম
১৯| আমি বর্তমানে কক্সবাজার জেলা কৃষক লীগের
সদস্য হিসাবে দায়িত্ব পালন করিতেছি |
২০| আমাকে স্হানীয় সরকার পরিষদ নির্বাচনে মনোনয়ন বোর্ড কক্সবাজার জেলা আওয়ামীলীগ ২০১৬ ইং এর চেয়ারম্যান পদে চুড়ান্ত প্রার্থীর নামের ০১ নং তালিকায় আমার নাম নির্বাচন বোর্ড ঢাকায় প্রেরণ করে|
২১| আমি পর পর ৩বার কোনাখালী ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্দিতা করি এবং সম্মানের সহিত বিপুল ভোট পেয়ে ২য় স্হান অধিকার করি
২২| ৭মে ২০১৬ইং স্থানীয় সরকার পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে মাত্র ৫৭ ভোটে পরাজিত হয়ে ২য় স্থান অধিকার করি।

সমাজিক পরিচিতি
১|আমি ১৯৮২ সাল থেকে এক টানা ৪ বার বৃহত্তর ভেওলা মানিক চর ইউনিয়ন পরিষদের মেম্বার নির্বাচিত হয়ে সফলতার সহিত দায়িত্ব পালন করিয়াছি |
২| আমি মেম্বার থাকা কালীন ১(এক) বৎসর ৩ মাস ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান হিসেবে দায়িত্ব পালন করিয়াছি |
৩| কোনাখালী হেদায়েতুল উলুম দাখিল মাদ্রাসার পরিচালনা কমিটির দায়িত্ব পালন করিয়াছি |
৪| কোনাখালী করিমিয়া উচ্চ বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সদস্য হিসাবে দায়িত্ব পালন করিয়াছি।
৫।মেহেরনামা উচ্চ বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির অভিভাবক সদস্য হিসাবে দায়িত্ব পালন করিয়াছি।
৬। আমি বিভিন্ন সময় হাজ্বী হামিদ আলী জামে মসজিদ পরিচালনা কমিটির দায়িত্ব পালন করিয়াছি।
৭। আমি আমার শ্রদ্ধেয় মা-বাবার ইছালে ছওয়াব উপলক্ষে তাহাদের নামে ২নং ওয়ার্ড বড় কবর স্থান সংলগ্ন ১ (কানি) জমি বরাদ্দ দিয়া জলীলিয়া জামে মসজিদ প্রতিষ্ঠা করি এবং ৩ নং ওয়ার্ডে ২০ শতক জামি বরাদ্দ দিয়া ফেরেজা খাতুন জামে মসজিদ প্রতিষ্ঠা করিয়াছি।
৮। ১৯৮৭ইং সালে ৫শে ডিসেম্বর স্বৈরাচার এরশাদ বিরোধী আন্দোলনে শহীদ দৌলত খান ভগ্নিপতি হিসেবে তাহার ৩ বোনের বিবাহ সম্পন্ন করিয়াছি এবং তাহার পরিবারের অভিভাবক হিসেবে দায়িত্ব পালন করিতেছি।
৯। বর্তমানে কোনাখালী ইউনিয়নের সর্বস্তরের জনগণ আমাকে চেয়ারম্যান হিসেবে পাওয়ার জন্য একান্ত প্রত্যাশী। উল্লেখ্য যে, আমার বাবা মরহুম আব্দুল জলিল  মহান মুক্তি যুদ্ধের সংগঠক ছিলেন।”

তিনি সকলের সহযোগিতা,  ভালবাসা ও সমর্থন কামনা করেছেন।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category